Press "Enter" to skip to content

ITC র ভিভেল মহিলা লিডারশিপ ইনিশিয়েটিভ এবং আজাদ ফাউন্ডেশন, সম্মিলিতভাবে সম্প্রদায়ের রুপান্তর উদ্যোগের ৭ম বর্ষ উদযাপন করেছে….।

Spread the love

পরিবর্তনকে প্রজ্বলিত করা: তৃণমূল স্তর থেকে উঠে এসে সম্প্রদায়ের সেরা

নিজস্ব প্রতিনিধি : নিউদিল্লি, ২০ মার্চ, ২০২৪।‘আব সমঝোতা নেহি’ নীতিকে সামনে রেখে ২০১৬ সাল থেকে, আইটিসি-র ভিভেল মহিলা লিডারশিপ ইনিশিয়েটিভ, তৃণমূল স্তরে পরিবর্তনের চ্যাম্পিয়নদের উৎসাহ দিতে নিবেদিত একটি উদ্যোগ। আজাদ ফাউন্ডেশন এবং ভিভেল মহিলা লিডারশিপ উদ্যোগের নেতৃত্ব প্রদান কর্মসূচি ‘পারভাজ’, এই বছর নারী ক্ষমতায়ন ও সম্প্রদায়ের রূপান্তরের সপ্তম বর্ষ উদযাপন করছে। বছরব্যাপী নিবিড় প্রশিক্ষণ কর্মসূচী, তরুণীদের নেতৃত্বদানের সক্ষমতা এবং ব্যক্তিগত স্তরে কার্যকারিতা বাড়াতে সাহায্য করেছে। রুপান্তরের লক্ষ্যে অগ্রগামী চিন্তাভাবনার সঙ্গে, এই তরুণীর নিজেদের সম্প্রদায়ে রুপান্তরের অনুঘটক হিসাবে কাজ করছেন।

লিঙ্গ ও পিতৃতন্ত্রের ব্যপারে নারীবাদী নীতি, লিঙ্গ-ভিত্তিক হিংসা মোকাবিলার ক্ষমতা, আইনি শিক্ষা, সামাজিক সুরক্ষা প্রকল্পগুলি সম্পর্কে জ্ঞান ও আর্থিক ক্ষমতায়নের শিক্ষাকে পাথেয় করে, দরিদ্র পরিবার থেকে উঠে আসা এই ১৩০জনেরও বেশি নেত্রী, সম্প্রদায়ের কয়েক হাজার মহিলাকে নানাভাবে সহায়তা করছেন। এই তরুণী নেতারা মহিলাদের অধিকারকে আরো জোরদার ভাবে প্রতিষ্ঠিত করতে, তাদের প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য ও শিক্ষা পরিষেবাগুলি পেতে এবং আর্থিক স্বাধীনতা অর্জনের জন্য ক্ষমতায়িত করছেন।

মহিলা লিডারশিপ প্রোগ্রামের স্নাতকরা, নিজেদের অধিকার সম্বন্ধে সচেতন, ক্ষমতায়িত দূত হিসাবে সম্প্রদায়ের মহিলাদের সংগ্রামকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সক্ষম। তাদের নিরলস প্রচেষ্টা এবং অবিচল উত্সর্গ, সম্প্রদায় এবং স্থানীয় পর্যায়ে প্রশাসনিক সংস্কারকে উত্সাহিত করেছে।  প্রশিক্ষিত অনেকেই এখন দিল্লি মহিলা কমিশন, দিল্লি লিগাল সার্ভিস অথরিটি, মহিলা পঞ্চায়েত, হকদর্শক, জাগোরী, জোশ, চেতনালয়, শ্রমিক মজদুর সংগঠন এবং আজাদ ফাউন্ডেশনের মতো বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত।

আইটিসি ভিভেল মহিলা লিডারশীপ উদ্যোগ তরুণ মহিলাদের অনুপ্রেরণামূলক যাত্রাকে তুলে ধরে সম্প্রদায়ের রূপান্তরের একটি নতুন যুগের সূচনা করেছে। এই মহিলারা আত্ম-আবিষ্কার এবং স্বাধীনতার প্রতীক। আজাদ ফাউন্ডেশনের সহায়তায় অত্যন্ত নিবিড়ভাবে তৈরি প্রশিক্ষণ কর্মসূচির মাধ্যমে, এই তরুণীরা সমাজে অর্থবহ পরিবর্তন এবং বৃহত্তর লিঙ্গ সমতার লক্ষ্যে সামাজিক নিয়মগুলিকে নতুন করে তৈরি করছেন।

মীনু ভাদেরা, প্রতিষ্ঠাতা এবং চীফ মেন্টর, আজাদ ফাউন্ডেশন বলেন, “আইটিসি ভিভেল এর সঙ্গে এই উদ্যোগে শামিল হতে পেরে আমরা গর্বিত। এই সংস্থাটিও দরিদ্র মহিলাদের মর্যাদার সাথে জীবিকা নির্বাহে সহায়তা করার জন্য সমানভাবে উত্সাহী। সুন্দর এবং প্রগতিশীল সহযোগিতামূলক যাত্রার ৭ম বর্ষ উদযাপনে, আমরা মহিলা নেতৃত্বের প্রশিক্ষণ এবং তৃণমূল পর্যায়ে পরিবর্তনকে কার্যকর করার লক্ষ্যে আরও একধাপ এগিয়েছি। আগামীদিনের রুপান্তরকে প্রত্যক্ষ করা এবং তরুণ নেতৃত্বের নিজেদের সম্প্রদায় এর পাশে দাঁড়ানো সত্যিই আনন্দদায়ক”।

আইটিসি লিমিটেডের ডিভিশনাল চীফ এক্সিকিউটিভ, পার্সোনাল কেয়ার প্রোডাক্টস বিজনেস, সমীর সতপথি যোগ করেছেন, “আইটিসি-এর ভিভেল মহিলা লিডারশিপ উদ্যোগ তৃণমূল পর্যায়ে পরিবর্তনের ক্ষমতায়ন এবং অগ্রগতিকে উদযাপনে নেতৃত্ব দিচ্ছে। তা সে চিন্তা ভাবনাকে জাগ্রত করায় হোক কিংবা, যাত্রাকে অনুপ্রাণিত করা বা জ্ঞানের মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়ন, আব সমঝোতা নেহি-এর দর্শনের নীতির অংশ হিসাবে, রূপান্তরমূলক পরিবর্তনকে সক্ষম করার সাধনা নিরলসভাবে চলছে। আজাদ ফাউন্ডেশন দরিদ্র সম্প্রদায়ের মধ্যে আমাদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমকে তৃণমূল স্তরে পৌঁছে দিয়েছে ফলে এর রূপান্তরমূলক প্রভাব গভীর। এই নারী দিবসে, আমরা পরিবর্তনের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে আরও নেত্রীদের ক্ষমতায়নের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করছি।”

আজাদ ফাউন্ডেশনের সাথে আইটিসির ভিভেল মহিলা লিডারশিপ প্রোগ্রাম সমাজের বিভিন্ন স্তর থেকে উঠে আসা মহিলাদের ক্ষমতায়ন করবে। এই রূপান্তরমূলক যাত্রার অভিজ্ঞতা অর্জন এবং নিজেদের সম্প্রদায়ের পরিবর্তনে সহায়তা করার জন্য নতুন দিল্লি, কলকাতা এবং জয়পুর থেকে তরুণীরা স্বেচ্ছায় অংশগ্রহণ করতে পারেন। কর্মসূচিতে যোগ দিতে এবং এই সম্পর্কে আরও জানতে, অনুগ্রহ করে ভিজিট করুন, https://www.vivel.in/vivel-mahila-leadership

More from BusinessMore posts in Business »
More from InternationalMore posts in International »
More from SocialMore posts in Social »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *