Press "Enter" to skip to content

হীরালাল সেন উপমহাদেশের প্রথম চলচ্চিত্র প্রদর্শক, নির্মাতা এবং সার্বিকভাবে প্রথম চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব….।

Spread the love

স্মরণঃ হী রা লা ল সে ন

বাবলু ভট্টাচার্য : উপমহাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে হীরালাল সেন এক অবিস্মরণীয় নাম।

তিনি ছিলেন উপমহাদেশের প্রথম চলচ্চিত্র প্রদর্শক, নির্মাতা এবং সার্বিকভাবে প্রথম চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব।

বহুগুণ এবং প্রতিভায় ভাস্বর এই অসামান্য বাঙালি সন্তান ১৮৬৮ সালের ২ আগস্ট মানিকগঞ্জের বগজুরি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

ছাত্রাবস্থায় ফটোগ্রাফির নেশায় উন্মুখ তরুণ একদিন থিয়েটারে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র দেখে নিজেই চলচ্চিত্র নির্মাণ ও প্রদর্শনের স্বপ্ন দেখেন। ‘দ্য রয়াল বায়োস্কোপ কোম্পানি’ গঠন করে চলচ্চিত্র প্রদর্শন শুরু করেন।

১৯০০ সালে ‘পুকুরে স্নান’ ও ‘কোটের খেলা’ নামে দুটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। এর মধ্য দিয়ে শুরু হয় হীরালাল সেনের চলচ্চিত্র নির্মাণ, পরিকল্পনা ও প্রযোজনার অভিযাত্রা।

চলচ্চিত্র নির্মাণের প্রয়াসে তিনি ১৮৯৬ সালে যুক্ত হন এবং ১৯০০ সালের মধ্যেই ভারতীয় উপমহাদেশের প্রথম চলচ্চিত্রকার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। ১৯০০ সাল থেকে ১৯১৭ সাল পর্যন্ত তিনি ৪০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন।

১৯০৪ সালে উপমহাদেশের প্রথম নির্বাক চলচ্চিত্র ‘আলীবাবা ও চল্লিশ চোর’ নির্মাণ করেন তিনি। ১৯০৩ সালে তাঁর রয়্যাল বায়োস্কোপ কোম্পানি থেকে প্রথম বাংলায় সিকে সেনের মাথার তেল ‘জবাকুসুম’, বটফেস্ট পালের ‘এডওয়ার্ড টনিক’ ও ডব্লিউ মেজর কোম্পানির ‘সালসা পিলা’ প্রভৃতি বিজ্ঞাপনচিত্র নির্মিত হয়। তাছাড়া তিনি প্রামাণ্যচিত্র ও সংবাদচিত্রও নির্মাণ করেন।

শেষ জীবনে পরিবারের সদস্যদের কাছে প্রতারিত হয়ে ক্যামেরা বিক্রি করে দিতে বাধ্য হয়েছিলেন হীরালাল সেন। চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে গিয়ে এক দুর্ঘটনায় হারিয়েছেন মেয়েকেও।

হীরালাল সেন ১৯১৭ সালের আজকের দিনে (২৬ অক্টোবর) ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।

More from EntertainmentMore posts in Entertainment »
More from InternationalMore posts in International »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *