Press "Enter" to skip to content

সচেতনতা থেকে অ্যাকশন পর্যন্ত – এই অ্যাজমা সচেতনতা মাসে বিশেষজ্ঞরা অ্যাজমা কেয়ারের প্রতিটি পর্যায়ে ক্ষমতায়নের পক্ষে পরামর্শ দিচ্ছেন….।

Spread the love

নিজস্ব প্রতিনিধি : কলকাতা, ৬মে ২০২৪: অ্যাজমার কারণে মৃত্যুর হার বেড়ে যাওয়ার মতো জনস্বাস্থ্য সংকট এবং মানুষের জীবনের মান পড়ে যাওয়ার মাঝে কার্যকর অ্যাজমা ব্যবস্থাপনার গুরুত্ব নজরে আসে। এই বছর বিশ্ব অ্যাজমা দিবসের বিষয়, “অ্যাজমা শিক্ষা ক্ষমতায়ন,” অ্যাজমা ব্যবস্থাপনা এবং রোগীর উপর চিকিৎসার প্রভাবের উন্নতির বিষয়ে জ্ঞানের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার উপর জোর দেয়। প্রাদুর্ভাব এবং অ্যাজমার কারণে অক্ষমতা-সামঞ্জস্যপূর্ণ জীবন বছরে (Disability-adjusted life years, DALYs) ভারত ১ নং স্থানে রয়েছে, সেই সাথে বিশ্বব্যাপী অ্যাজমা জনিত মৃত্যুর ৪২% ভারতে, এই বছরের বিষয় এই জটিল সমস্যাটি মোকাবেলা করার জন্য জাতীয় স্তরের সংঘবদ্ধকরণের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেয়। 1, 2, 3

অ্যাজমার কার্যকর ব্যবস্থাপনা পরিচালনা করার জন্য একাধিক বিষয় জড়িত এবং সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য একটি সহায়ক বাস্তুতন্ত্রের প্রয়োজন যাতে পরিচর্যার এবং চিকিৎসার সমস্ত দিক অন্তর্ভুক্ত থাকে। রোগ এবং থেরাপি সম্পর্কে সচেতনতা থেকে শুরু করে ডায়াগনস্টিক পরীক্ষা, স্ক্রীনিং, কাউন্সেলিং এবং রোগী কতটা চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলছেন, অ্যাজমা যাত্রায় প্রতিটি পদক্ষেপ গুরুত্বপূর্ণ। জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন যেমন সিপ্লা (Cipla)-এর বেরোক জিন্দেগী (Berok Zindagi) এবং টাফিস (Tuffies), এর সাথে রোগীদের সহায়তার প্রচেষ্টা যেমন কোম্পানির ব্রেথফ্রি (Breathefree) উদ্যোগ, রোগীদের জন্য সহায়তার একটি নেটওয়ার্ক তৈরি করে। ব্রেথফ্রি (Breathefree) একটি এআই-সক্ষম ডিভাইস প্রশিক্ষণ প্ল্যাটফর্ম সহ শারীরিক এবং ডিজিটাল উভয় উপাদানকেই অন্তর্ভুক্ত করে। এই নেটওয়ার্ক শুধুমাত্র রোগীদেরই সহায়তা করে না সঙ্গে তাদের পরিবারকেও স্বস্তি দেয়।

শিক্ষার দ্বারা ক্ষমতায়িত অ্যাকশনের গুরুত্ব সম্পর্কে মন্তব্য করে, ডাঃ রিতম চক্রবর্তী, কনসালট্যান্ট পালমোনোলজিস্ট এবং ক্রিটিক্যাল কেয়ার বিশেষজ্ঞ, কলকাতা বলেন, “সংকীর্ণ শ্বাসনালী, ট্রিগার বা সমস্যা উদ্রেককারী বস্তুগুলিতে (যেমন ডাস্ট মাইটস, ধোঁয়া, ঠান্ডা হাওয়া ইত্যাদি) সংবেদনশীলতা বৃদ্ধি এবং শ্বসন পথে পরিবর্তন দ্বারা চিহ্নিত, অ্যাজমা একটি দীর্ঘমেয়াদী/দীর্ঘস্থায়ী রোগ। যদিও এটি নিরাময়যোগ্য নয়, সময়মতো রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসার মাধ্যমে এটি নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে। যদিও, ভুল ধারণা, বিশেষ করে ইনহেলেশন থেরাপি সম্পর্কে ভুল ধারণার জন্য প্রায়শই রোগীরা তাদের ডাক্তারের পরামর্শ অনুসরণ করতে ব্যর্থ হয়। প্রকৃতপক্ষে, ভারতে মাত্র ২৩% রোগী তাদের অবস্থাকে প্রকৃত নামে উল্লেখ করে আর বাকিরা এটিকে সর্দি এবং কাশির মতো কিছু বলে উল্লেখ করে। সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে, শুধুমাত্র রোগীদের মধ্যে নয়, বৃহত্তর সম্প্রদায়ের মধ্যেও, আমরা সময়মত রোগ নির্ণয় এবং উপযুক্ত ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে পারি, যার ফলে শেষ পর্যন্ত অ্যাজমা রোগীদের মধ্যে চিকিৎসার দ্বারা স্বাস্থ্যের উন্নতি হবে। 4

প্রাথমিক হস্তক্ষেপ এবং রোগীর চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলা নিশ্চিত করতে শিক্ষার গুরুত্বের উপর জোর দিয়ে
ডাঃ দেবপম চ্যাটার্জি, ইন্টারভেনশনাল পালমোনোলজিস্ট এবং স্লিপ মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, কলকাতা বলেন, “অ্যাজমা ব্যবস্থাপনার লক্ষ্য হল উপসর্গ নিয়ন্ত্রণে সর্বোত্তম সাফল্য অর্জন করা, আক্রমণ এবং জীবনযাত্রার মানের উপর যে কোন কিছুর প্রভাব প্রতিরোধ করা। এটি সাধারণত রক্ষণাবেক্ষণ এবং উপশমকারী থেরাপির সংমিশ্রণের মাধ্যমে অর্জন করা হয়। ইনহেলেশন থেরাপি একটি ভিত্তিপ্রস্তর হিসাবে কাজ করে, যা জীবনের মানকে ব্যাপকভাবে উন্নত করে। প্রকৃতপক্ষে, শিশু বা বয়স্কদের মতো রোগীরা যাদের ক্ষেত্রে দ্রুত ইনহেলেশনের মুশকিলের, নেবুলাইজড চিকিৎসা তাদের একটি বাস্তব সমাধান দেয়, বিশেষ করে গুরুতর অবস্থার সময়। যদিও, এটা উদ্বেগজনক যে ইনহেলার সম্পর্কে ভুল ধারণার কারণে অনেক রোগী তাদের চিকিৎসা পরিকল্পনা মেনে চলে না ফলে রোগ নির্ণয় হয়েছে এমন রোগীদের মধ্যে ৯% এর কম রোগী ইনহেলেশন থেরাপি ব্যবহার করে। এই চ্যালেঞ্জগুলিকে আরও কঠিন করে তোলে অন্যান্য কিছু সমস্যা যেমন স্বাস্থ্যসেবায় পর্যাপ্ত অ্যাক্সেস না থাকা, ডিভাইসগুলি কীভাবে ব্যবহার করতে হয় সে সম্পর্কে সঠিক প্রশিক্ষণের অভাব এবং অপর্যাপ্ত নির্দেশিকা। অতএব, এই সমস্যাগুলির সমাধান করার জন্য, ভারতে অ্যাজমার যত্নের ব্যাপারে আমাদের চিন্তাভাবনার একট মৌলিক পরিবর্তন প্রয়োজন।” 5, 6, 7

সচেতনতাকে অগ্রাধিকার দিয়ে এবং একটি সহায়ক বাস্তুতন্ত্র গড়ে তোলার মাধ্যমে, রোগীরা তাদের অ্যাজমা যাত্রায় প্রয়োজনীয় সহায়তা যাতে পান তা নিশ্চিত করতে সিপ্লা (Cipla) নিবেদিত থাকে। বেরোক জিন্দেগী (Berok Zindagi)-এর সাথে, অনেক সৃজনশীল মাধ্যমের দ্বারা সিপ্লা (Cipla) অ্যাজমা সংক্রান্ত ভুল ধারণা এবং এর চিকিৎসা সংক্রান্ত কলঙ্ককে চ্যালেঞ্জ করেছে। যখন টাফিস (Tuffies) ক্যাম্পেইনটি আকর্ষক কমিক বইয়ের পাশাপাশি টাফিস কি স্কুল যাত্রা (Tuffies Ki School Yatra)-এর মতো অন-গ্রাউন্ড স্কুল প্রোগ্রামের মাধ্যমে শ্বাসকষ্টজনিত রোগ যেমন অ্যাজমা আক্রান্ত বাচ্চাদের এবং তাদের তত্ত্বাবধায়কদের জন্য অনুপ্রেরণার একটি আন্দোলনে বিকশিত হয়েছে।

সমান্তরালভাবে, সিপ্লা (Cipla)-এর ব্রেথফ্রি (Breathefree) উদ্যোগটি স্ক্রীনিং, কাউন্সেলিং এবং চিকিৎসা সংক্রান্ত পরামর্শ মেনে চলার ক্ষেত্রে অ্যাজমা রোগীদের জন্য ব্যাপক সহায়তা সংস্থান প্রদানে সহায়ক ভূমিকা পালন করেছে। অন-গ্রাউন্ড স্ক্রীনিং ক্যাম্প থেকে শুরু করে, এখন একটি এ-আই সক্ষম ব্রেথফ্রি (Breathefree) ডিজিটাল এডুকেটর প্ল্যাটফর্ম অ্যান্ড ডিভাইস ‘কীভাবে করবে’ ভিডিওর (device training ‘how-to’ videos) ট্রেনিং দিচ্ছে; অ্যাজমা রোগীদের জন্য Breathefree একটি ওয়ান-স্টপ সাপোর্ট সলিউশন হিসেবে বিকশিত হয়েছে।

আরো তথ্যের জন্য ভিজিট করুন: www.breathefree.com

***
Disclaimer:
This information is only for general awareness and is not to promote, use, or endorse any product or encourage use of medicines in any way nor implied to be a substitute for professional medical advice nor for diagnosis or treatment/ cure of any medical condition. The views expressed are independent opinion based on studies from authentic sources. Your discretion may be exercised before using the information for consulting doctor. Please consult your doctor/ Registered Medical Practitioner before starting any treatment/medicine/ inhaler. This is being used only as a reference to create awareness and is NOT intended towards advertisement.
——-
Ref:
1. Wang, Zhufeng et al. “Global, regional, and national burden of asthma and its attributable risk factors from 1990 to 2019: a systematic analysis for the Global Burden of Disease Study 2019.” Respiratory research vol. 24,1 169. 23 Jun. 2023, doi:10.1186/s12931-023-02475-6
2. Mortimer, Kevin1,2; Salvi, Sundeep Santosh3,4; Reddel, Helen K.5,6, *. Closing gaps in asthma care in India – World Asthma Day 2022. Indian Journal of Medical Research 156(1): p 6-9, July 2022. | DOI: 10.4103/ijmr.ijmr_893_22
3. Salvi, Sundeep1,2,; Madas, Sapna1; Ghorpade, Deesha1; Gadhave, Swapnil1; Barne, Monica1. Is underuse of Inhaled Corticosteroids for Asthma in India contributing to 42% of global asthma deaths?. Lung India 39(4):p 331-336, Jul–Aug 2022. | DOI: 10.4103/lungindia.lungindia_600_21
4. Singh S, Salvi S, Mangal DK, et al. Prevalence, time trends and treatment practices of asthma in India: the Global Asthma Network study. ERJ Open Res 2022; 8: 00528-2021 [DOI: 10.1183/ 23120541.00528-2021].
5. Scichilone, Nicola. “Asthma control: the right inhaler for the right patient.” Advances in therapy vol. 32,4 (2015): 285-92. doi:10.1007/s12325-015-0201-9
6. https://www.who.int/news-room/fact-sheets/detail/chronic-obstructive-pulmonary-disease-(copd)
7. Virchow, J C et al. “Importance of inhaler devices in the management of airway disease.” Respiratory medicine vol. 102,1 (2008): 10-9. doi:10.1016/j.rmed.2007.07.031

More from HealthMore posts in Health »
More from InternationalMore posts in International »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *