Press "Enter" to skip to content

লেকের কালো জলে পাতি হাঁসের মেলা। কখন যে উঠে আসবে ডাঙায় পায়ের কাছে,আপনি টেরও পাবেন না….।

Spread the love

অধ্যাপক সুখেন বিশ্বাস : রাশিয়া, ২৫ আগস্ট, ২০২৩। নভেম্বর থেকে শুরু হয় বরফ পড়া, চলে মার্চ অবধি। এখন গরমকাল, রাতে অবশ্য বেশ শীত। তিবেরে রয়েছে ‘কেরিয়ার লেক’। পার বরাবর পাইনের সারি, লেকের তট জুড়ে ঘিয়ে-রঙা বালি। ‘চলো না দিঘার সৈকত ছেড়ে ঝাউবনের ছায়ায় ছায়ায়/ শুরু হোক পথ চলা শুরু হোক কথা বলা’— ছায়া ঘেরা পাইন বনে হাঁটতে হাঁটতে বারবার মনে পড়ছিল পিন্টু ভট্টাচার্যের এই গানটা। দিগন্ত জুড়ে নীল আকাশ, মাঝে মাঝে পানসি নৌকোর মতো ভেসে রয়েছে মেঘগুলো। লেকের কালো জলে পাতি হাঁসের মেলা। কখন যে উঠে আসবে ডাঙায় পায়ের কাছে,আপনি টেরও পাবেন না। রাশিয়ানরা এখানে ছুটি কাটায়, স্নান বা নৌকো চড়ার পাশাপাশি শরীর ট্যান করে। পাশাপাশি এই লেকে রয়েছে ‘সারফিন’ ট্রেনিং সেন্টার। সঙ্গে চলে ‘সাসলিক’ ( কাঠ কয়লায় মেরিনেট চিকেন রোস্ট করা) উৎসব।

ভারতীয় টাকায় মেরিনেট চিকেনের কেজি মাত্র একশো কুড়ি টাকা! রাশিয়ানদের মতো আমরাও মেতে উঠেছিলাম সাসলিক উৎসবে। চোখ জুড়িয়ে যায় এই দেখে, জলে বা লেক-তটে কোথাও এক টুকরো নোংরা পড়ে নেই।

স্থানীয়রাই নিজেরাই পরিষ্কার করে রাখে তাদের এই সুন্দর অঞ্চলটিকে।

More from EntertainmentMore posts in Entertainment »
More from InternationalMore posts in International »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *