Press "Enter" to skip to content

ভ্যালেনটাইন্স ডে স্পেশাল……। (পার্ট –৩)

+++++++++++(পর্ব-০৪৬)+++++++++++++++
মঞ্চ-মায়াবী,জাদু-শিল্পী পি সি সরকার জুনিয়র
(Dr. Prodip Chandra Sorcar, M.Sc.,Ph.D.). কলকতা, ১৭, ফেব্রুয়ারি, ২০২১।
* ভ্যালেনটাইন্স ডে স্পেশাল (part-3) অগতির গতি ওই প্যাণ্ডেলের দিকেই এগুলাম। জীবনটা যেন পাড়ার কাঁচা রাস্তায় গুলি খেলা। "নো সাফ-সুফ, নো তুল্লি"। হেড লাস্টে আমি যেন যাচ্ছি 'পিল' করতে , মা দূর্গার কাছে কমপ্লেইন ঠুকতে। অভাগার এ-ছাড়া আর কি করার আছে? পূজোর অঞ্জলী শুরু হচ্ছে। জনতার স্রোতে গা ভাসিয়ে দিলাম।

প্যাণ্ডেলের কাপড়ের দেওয়াল ঘেঁষে দাঁড়িয়ে, হাতে ফুল, বেলপাতা, আর চন্দন ছেঁটানো দূর্বা নিয়ে, তিন-তিনবার সংস্কৃত মন্ত্রের মানে না জানা , প্রতিধ্বনির সঙ্গে গলা মিলিয়ে সেই শাস্ত্রীয়-অঞ্জলী শেষ হলো। ঠাকুর মশাই ঘোষণা করলেন,"এবার যে যার মতো করে নিজের ভাষায় মায়ের কাছে প্রার্থনা করে যা চাইছো, সেটা মনে মনে চাও। যা চাইবে, সেটাই পাবে...।" কথাটা আমার মনে খুব দোলা দিয়ে ছিলো!! বলেন কি না, যা চাইবো, তাই পাবো!! এ তো, নরেণের- বিবেকানন্দ হবার আগে ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ যা বলেছিলেন ঠিক তাই!! "তুই যা চাইবি, তা-ই পাবি!" My God!!

কি দুঃসাহস !!! তখন আমার একটা বাঁধাধরা চাইবার লিস্ট ছিলো। বহুবার চেয়েছি, পাইনি। চাইতে চাইতে সেগুলো প্রায় মুখস্থ-র মতো হয়ে গেছিলো। একবার শুরু করলে গরগর করে নিজে নিজে আউড়ে যায়। শুরু করলাম সেটা, শেষও হলো। কিন্তু তৃপ্ত হলাম না। মনের কোণে কী-যেন একটা আটকে সেঁটে রয়েছে...সেটা চাওয়া হয়নি। এড়িয়ে যেতেও, নড়তে বাধা দেয়। পুনশ্চ বলে আবার ফিরে আসি ওই খানেই। মা দূর্গার মুখের দিকে তাকাতে লজ্জা করে। একটু দেখেই চোখ বন্ধ করি। পরিস্কার বুঝি -- বলছেন, "মুখ ফুটে না চাইলে দেবো না"। কি নির্মম্ আর বে-রসিক আমার এই মা- টারে বাবা!!!

বলিয়েই ছাড়লো!!!
বললাম, “মা, তুমি তো অন্তর্যামী! সবই জানো। শুধু শুধু আমায় এরকম RAGGING করছো কেন ? আমার না, …মানে আমাকে যখন ব্যাটাছেলে করে জন্মই দিয়েছো, তখন আমার সঙ্গে মানান সই, আমার কাউন্টার পার্ট, মানে ইয়ে.. মানে বুঝতেই তো পারছো… নিশ্চয়ই বানিয়ে পাঠিয়েছো !! তার সঙ্গে একটু…ইয়ে,… মানে দেখা…মতলব্…আলাপ করিয়ে দিলে caseটা খুব জমতো। মাইরি বলছি মা !! ওকে আমি খুব শুধু ভালোবাসবো…ওই ‘বন্ধু’দের মতো মিছি-মিছি চ্যাংড়ামো নয় ! সত্যিকারের প্রেম করবো । সম্মানের সাথে ভালোবাসবো…কথা দিচ্ছি মা ।”
ও মা!!!!!কানে আমি এ কি শুনলাম !!??!! সুরেল কণ্ঠে কে যেন জবাব দিলেন,” সে তোর কাছে, পাশেই দাঁড়িয়ে আছে।”


সত্যি বলছি, আমার গায়ে কাঁটা দিয়ে উঠেছিলো!! …এ আমি কী শুনলাম!?.. সত্যিই শুনলাম, নাকি কাকতালীয় ভাবে , অন্যের কথা নিজের জন্য বলে ভাবলাম?… নাকি উইশফুল ট্রিক অফ মাইণ্ড !? যাই হোক,শুনে ভয় পেয়েছিলাম। আরো ভয় পেয়ে ছিলাম চোখ খুলতে। খুলে কী দেখবো ,সেটা ভেবে। কাকে দেখবো? চোখ খুলতেই ফ্রাসট্রেশন !! পাশে রয়েছেন পাড়ার সব মাসীমা, পিসীমা আর ঠাকুমার দল। এঁদের কেউই আমার 'ও'-হতেই পারে না। জুতোর ফিতে বাঁধতে বাঁধতে পেরিয়ে মা দূর্গার মুখটা দেখি। নির্লজ্জ। এখনও চেয়ে মিটি মিটি হাসছে !!! মায়া, দয়া, ভালোবাসা কিস্স্যু নেই। আঘাত খেয়েছিলাম। উর্দু কবির লেখা কয়েকটা লাইন মনে পড়ে ছিলো । বোকা! এখনও কবিতা। !!

” তু নে কিস্ দিল কো দূখায়ে হ্যায়,/ তুঝে কেয়া মালুম !! ম্যায় তো হাস্-হাসকে আয়ে থে, পায়ে করে নাজ্…কিত্ নে আহু ছুপায়ে হ্যায়, /তুঝে কেয়া মালুম।”
জল ভরা চোখে আবার তাকাই মা দূর্গার মুখের দিকে।
নির্লজ্জ! সেডিস্ট !!! এখনও হাসছে!!!

ইসকা সাজা মিলেগা। জরুর মিলেনা। ঠিক করি, আর চাঁদা দেবনা। নাস্তিক হবো। প্যাণ্ডেলের বাইরে, ধীরে ধীরে পাশের দিকে আসি। আরে !!! Statue!! তিষ্ঠ !… “জন্ম যদি তব বঙ্গে তিষ্ঠ” -এ মুহুর্তে!!!! প্যাণ্ডেলের যে কাপড়ের দেওয়ালের ওপাশে আমি ছিলাম, সেই আমার দাঁড়ানোর জায়গা থেকে খুব বেশী হলে এক ফুট দূরে এ কে দাঁড়িয়ে আছে? “কে তুমি ? …নন্দিনী ?..আগে তো দে….” না , না দেখেছি!!! হ্যাঁ, হ্যাঁ দেখেছি। আবছা কুয়াশার ও-পাড়ে, এ জন্মে নয়, ও জন্মে…না না জন্ম জন্মান্তর ধরে দেখেছি, দেখে এসেছি,..সেই হারিয়ে যাওয়া তোমাকে। যেন রথের ভীড়ে হাত ফসকে হারিয়ে গিয়ে ছিলে…কতো খুঁজছিলাম, নাম ধরে চিল্লিয়ে ডাকছিলাম,.. তারপর নিজেও হারিয়ে গেলাম।.. হয়ে গেলাম আমিও নেই এর দলে !! এই তো আবার খুঁজে পেয়েছি । আর হারাতে দেবো না। হারগিস্ না।

বড্ডো বেশি কাছে এগিয়ে গেছিলাম। জিজ্ঞেস করেছিলাম, ” কোথায় ছিলে…এত দিন ?” তারপর আবার অবাক হয়ে, অবাক করে জিজ্ঞেস করে ছিলাম,” ..আমায় চিনতে পারছো ?.. আমি তোমার বর! আমি তোমার জহরদা !!”
ছিটকে উঠেছিলে তুমি। এক ঝটকায় দূরে সড়ে গিয়ে বলেছিলে, ” ছোটলোক! অ্যাক থাপ্পড় মারবো। বাবাকে বলে দেবো। পাজী, বদমাস লোক, দ্যাখাচ্ছি !”
ছুটে পালিয়ে ছিলে তুমি।
এই তো আমার প্রথম প্রেমালাপ। তার অতীত এবং ইতিহাস।

More from GeneralMore posts in General »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.