Press "Enter" to skip to content

ভারতীয় জীবন বীমা নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই….

Spread the love

বিশেষ প্রতিনিধি: কলকাতা,২রা ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১লা ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী শ্রীমতি নির্মলা সীতারামন এর আর্থিক বাজেট এ যখন জানাগেল কেন্দ্র LIC এর বিলগ্নিকরণের জন্য বাজারে শেয়ার ছাড়বে এবং সেই শেয়ার থেকে যে পরিমান অর্থ সংগ্রহ হবে সেই অর্থ দেশের উন্নয়নের কাজে ব্যবহৃত হবে। এই কথা জানার পর সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। বোধহয় লগ্নি করা পয়সা ফেরত পাওয়ার যাবে না এবং আগামীদিনে নতুন লগ্নী করলে সেটা কতটা সুরক্ষিত থাকবে এইসব নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে সংশয় সৃষ্টি হয়েছে। এইসব গুজবে কান না দেওয়ার জন্য কতৃপক্ষ মানুষকে নিশ্চিন্তে থাকার জন্য অনুরোধ করেছেন।

তাদের বক্তব্য অনুযায়ী LIC র কোনো পার্টই বেসরকারি হাতে যাচ্ছে না । ১৯৫৬ সালে যখন LIC আত্মপ্রকাশ করে তখন ভারত সরকার LIC তে ৫ কোটি টাকা (তদানীন্তন মোট মূলধনের ৫%) বিনিয়োগ করেছিল। ফলে বিগত ৬৩ বছর ধরে সেই বিনিয়োগের ডিভিডেন্ড ভারত সরকার পেয়ে আসছে LIC র কাছ থেকে। বিগত অর্থবর্ষে বিপুল অঙ্কের টাকা LIC দিয়েছে ভারত সরকারকে। বর্তমানে সরকারের ঐ ৫% এর কিছু অংশ, IPO র মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে শেয়ার কিনতে দেওয়া হবে। এতে LIC আগেও যে হারে সরকারকে ডিভিডেন্ড দিত, সেই একই হারে শেয়ার হোল্ডারদের দেবে। LIC র কোনো লাভ বা ক্ষতি হচ্ছে না। পলিসিগ্রাহকদের জন্য কোনো সমস্যা নেই। কারণ LIC যদি কখনও সত্যিই অর্থনৈতিক ভাবে দুর্বল হয়ে পড়ে, সেক্ষেত্রে গ্রাহকদের প্রাপ্য টাকা মেটানোর জন্য একটি SWISS REINSURANCE COMPANY র কাছে LIC, REINSURANCE করিয়ে রেখেছে। এখানে সরকার যাই করুক, গ্রাহকদের স্বার্থ সবসময়ই সুরক্ষিত থাকবে। LIC এর সত্য তথ্য হল
বেসরকারিকরণ(Privatization) ও বিলগ্নিকরণ( Disinvestment) সম্পূর্ণ ভিন্ন জিনিস। বিলগ্নিকরণ হলো কেবল শেয়ার বিক্রি। তাতে মালিকানা সরকারের ই থাকে। কোনো সংস্থা তে যখন ২৬ শতাংশের উপর সরকারের শেয়ার থাকে ততক্ষন সেটা সরকারি থাকবে । বেসরকারিকরণ এর উপর সরকার এখনো কোনো বিল আনেনি । যেটা হচ্ছে সেটা বেসরকারিকরণ নয় , বিলগ্নিকরণ । এটা ১৯৯১ সালের পর থেকেই হয়ে চলেছে। বর্তমানে LIC এর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৩১.১১ লক্ষ কোটি টাকা। এর মধ্য থেকে মাত্র ২.১ লক্ষ কোটি টাকা অর্থাৎ ৬.৭৫% শেয়ার বিলগ্নীকরণ করা হচ্ছে । এতে পলিসি হোল্ডার দের নিরাপত্তাহীনতার কোনও কারণ নেই, কারণ মালিকানা সরকারের হাতেই থাকছে।

More from GeneralMore posts in General »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *