Press "Enter" to skip to content

বিশ্ব স্ট্রোক দিবস: স্ট্রোক এবং এর প্রতিরোধ – ব্রেন স্ট্রোক সম্পর্কে সচেতনতা ও চিকিৎসা….।

Spread the love

নিজস্ব প্রতিনিধি : হাওড়া, ২৮ অক্টোবর, ২০২৩। ব্রেন স্ট্রোক সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে প্রতি বছর ২৯ অক্টোবর বিশ্ব স্ট্রোক দিবস পালিত হয়। ব্রেন স্ট্রোক, যা সেরিব্রোভাসকুলার দুর্ঘটনা নামেও পরিচিত, একটি গুরুতর এবং সম্ভাব্য জীবন-হুমকির চিকিৎসা অবস্থা। মস্তিষ্কে রক্ত চলাচলে ব্যাঘাত ঘটলে যা ঘটে।

স্ট্রোকের অনেক দুর্বল পরিণতি হতে পারে, যার মধ্যে পক্ষাঘাত, কথা বলার ক্ষমতা হারানো এবং এমনকি মৃত্যুও রয়েছে। যাইহোক, এই ধরনের স্ট্রোক প্রতিরোধ করা যেতে পারে। ডাঃ কৌশিক সুন্দর, কনসালটেন্ট নিউরোলজি, স্ট্রোক এবং ইন্টারভেনশনাল নিউরো, নারায়না হেলথ আরএন টেগোর হাসপাতাল, বলেছেন যে স্ট্রোকের কোন সীমানা নেই। এটি যে কোনো বয়স, লিঙ্গের মানুষকে প্রভাবিত করতে পারে। আমরা জীবনধারা পরিবর্তন এবং নিয়মিত চেকআপের মাধ্যমে এটি প্রতিরোধ করতে পারি। লক্ষণগুলি সনাক্ত করাও সমান গুরুত্বপূর্ণ।

হঠাৎ অসাড়তা বা দুর্বলতা, কথা বলতে অসুবিধা, প্রচণ্ড মাথাব্যথা ইত্যাদি স্ট্রোকের প্রধান লক্ষণ। হাওড়ার নারায়না সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের নিউরোলজিস্ট ডাঃ অরিন্দম দাসের মতে, সময়মত চিকিৎসার মাধ্যমে স্ট্রোকে আক্রান্ত ব্যক্তিকে শুধু বাঁচানো যায় না, তার অক্ষমতাও দূর করা যায়। উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, ডিসলিপিডেমিয়া, ধূমপান এবং অ্যালকোহল সেবনকে এর প্রধান কারণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

*স্ট্রোক প্রতিরোধে করণীয়*

১. একটি স্বাস্থ্যকর জীবনধারা বজায় রাখুন। সামগ্রিক স্বাস্থ্য এবং স্ট্রোক প্রতিরোধের জন্য একটি সুষম খাদ্য এবং নিয়মিত ব্যায়াম অপরিহার্য। বিশেষজ্ঞরা স্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং সোডিয়াম গ্রহণ সীমিত করার সময় ফল, শাকসবজি, পুরো শস্য এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেন। এই জাতীয় খাবার গ্রহণ রক্তচাপ, কোলেস্টেরলের মাত্রা এবং ওজন নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে, যার ফলে স্ট্রোকের ঝুঁকি হ্রাস পায়।

২. উচ্চ রক্তচাপ স্ট্রোকের একটি প্রধান কারণ। বিশেষজ্ঞরা নিয়মিত রক্তচাপ পর্যবেক্ষণ এবং স্বাস্থ্যসেবা পেশাদারদের সাথে কাজ করার পরামর্শ দেন যা প্রয়োজন অনুযায়ী জীবনধারা পরিবর্তন এবং ওষুধের মাধ্যমে উচ্চ রক্তচাপ পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।

৩. ধুমপান ত্যাগ কর. ধূমপান স্ট্রোকের একটি প্রধান কারণ। ইস্কেমিক এবং হেমোরেজিক স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে বিশেষজ্ঞরা দৃঢ়ভাবে ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার পরামর্শ দেন।

৪. অ্যালকোহল সেবন সীমিত করুন। অতিরিক্ত অ্যালকোহল সেবন স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিতে পারে। সংযম গুরুত্বপূর্ণ এবং বিশেষজ্ঞরা স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে অ্যালকোহল গ্রহণ সীমিত করার পরামর্শ দেন।

More from HealthMore posts in Health »
More from InternationalMore posts in International »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *