Press "Enter" to skip to content

পৃথিবীকে জ্ঞান-বিজ্ঞানে যাঁরা অগ্রসর করে গেছেন তাঁদের অন্যতম বেতার আবিষ্কারক গুলিয়েলমো মার্চেজ মার্কনি….।

Spread the love

জন্মদিনে স্মরণঃ মা র্ক নি

বাবলু ভট্টাচার্য : পৃথিবীকে জ্ঞান-বিজ্ঞানে যাঁরা অগ্রসর করে গেছেন তাঁদের অন্যতম বেতার আবিষ্কারক গুলিয়েলমো মার্চেজ মার্কনি।

মার্কনিই প্রথম- যিনি ম্যাক্সওয়েল থেকে শুরু করে হার্জ, টেসলা, পোপভ, ব্রঁলি, জগদীশচন্দ্র, অলিভার লজের মতো প্রায় দেড় ডজন বিজ্ঞানীর টুকরো টুকরো আবিষ্কারকে অর্থবহ করে তুলতে পেরেছিলেন।

১৮৬৪ সালে ম্যাক্সওয়েল বুঝেছিলেন তড়িৎশক্তি ও চৌম্বকশক্তি শুধু একে অপরকে জড়িয়ে থাকে না, একই সঙ্গে সৃষ্টি করতে পারে এক অদৃশ্য তরঙ্গ। তা আলোর সমান গতিবেগ নিয়ে ছুটতে পারে আকাশে-বাতাসে। এ তত্ত্বের পরিপূর্ণতা দিয়েছিলেন মার্কনি।

আটলান্টিক পেরিয়ে এক মহাদেশ থেকে আরেক মহাদেশে বেতার সংকেত পৌঁছে দিয়েছিল মার্কনির যুগান্তকারী পরীক্ষা। ১৯০১ সালে যখন অ্যান্টেনা বিষয়টিই কেউ ভালো করে বুঝে উঠতে পারেননি, মার্কনি তখনই পরিণত অ্যান্টেনা সিস্টেম তৈরি করে দেখাতে পেরেছিলেন।

ওই সময় অন্যান্য বিজ্ঞানী মনে করতেন, ভূপৃষ্ঠের বক্রতার জন্য বহু দূরবর্তী অঞ্চলে বার্তা পাঠানো সম্ভব নয়। কিন্তু তিনি এ অসম্ভবকে সম্ভব করে তুলেছিলেন আটলান্টিকের এপার থেকে ওপারে বেতার সংকেত পাঠিয়ে। জাহাজে ব্যবহৃত এক প্রকার কাঠের নাম অ্যান্টেনা। ওই কাঠের নামে মার্কনি ‘অ্যান্টেনা’ নামকরণ করেন।

মার্কনি কৃতিত্বের সঙ্গে ১৯০১ সালে যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে তারবিহীন যোগাযোগের এই শক্তিশালী মাধ্যম স্থাপন করেন।

মার্কনি প্রাতিষ্ঠানিকভাবে শিক্ষিত ছিলেন না। সাত বছর বয়সে তিনি কিছুদিনের জন্য স্কুলে গিয়েছিলেন। তাঁর বাবা ছিলেন ইতালিয়ান আর মা আইরিশ। একবার ইতালি, আরেকবার ইংল্যান্ড স্থানান্তরের কারণে তাঁকে স্থায়ীভাবে কোনো স্কুলে ভর্তি করানো হয়নি।

১৯০৯ সালে মাত্র ৩৫ বছর বয়সে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন মার্কনি।

১৯৩৯ সালের ২০ জুলাই মাত্র ৬৫ বছর বয়সে মার্কনি মৃত্যুবরণ করেন।

গুলিয়েলমো মার্চেজ মার্কনি ১৮৭৪ সালের আজকের দিনে (২৫ এপ্রিল) ইতালির বোলোনে জন্মগ্রহণ করেন।

More from InternationalMore posts in International »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *