Press "Enter" to skip to content

পরপর চারটি করোনা পজিটিভ, তটস্থ পূর্ব বর্ধমান….

মোল্লা জসিমউদ্দিন , মঙ্গলকোট,১৩ মে ; সর্বপ্রথম খন্ডঘোষে কাকা – ভাইঝির করোনা পজিটিভ দেখা মেলে। এরপর সদর বর্ধমান শহরের সুভাষপল্লীর এক নার্সের করোনা পজিটিভ। তারপর মেমারি শহরে এক যুবকের রক্ত রিপোর্টে মিলে করোনার জীবাণু। গত একমাসে পূর্ব বর্ধমান জেলার তিনটি থানা এলাকায় এইরুপ করোনা পজিটিভ মেলায় চাপা আতঙ্কে ছিল পূর্ব বর্ধমান জেলা। এই চাপা আতঙ্কের মধ্যেই গত সোমবার রাতে কেতুগ্রামের পালিটা অঞ্চলে রতনপুরে এক মহিলার রক্ত রিপোর্টে এলো করোনা পজিটিভ। এখনও পর্যন্ত পূর্ব বর্ধমানের চারটি ব্লক তথা দুটি মহকুমা এলাকায় চারটি করোনা পজিটিভ কেস সামনে আসায় গোটা পূর্ব বর্ধমান জেলাজুড়ে তীব্র চাঞ্চল্য দেখা গেছে। এই চারটি করোনা পজিটিভের অন্তরালে প্রত্যেকেরই কলকাতা ফেরত সংযোগ পাওয়া গেছে। তাতে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ ও প্রশাসন ডানকুনি – দূর্গাপুর সড়কপথে জামালপুর এবং পালসিটে পুলিশের কড়া চেকিং বসিয়েছে কলকাতা থেকে কারা কিভাবে কেন ফিরছে পূর্ব বর্ধমানে তা জানতে। গত সোমবার রাতে বিধাননগরের রাজারহাট থানা থেকে পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রাম থানায় ম্যাসেজ আসে যে, রাজারহাট কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের হেলফলাইনে কর্মরতা এক মহিলার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। গত তিনদিন আগে ওই মহিলা কলকাতার রাজারহাট থেকে নিজ বাড়ি অর্থাৎ পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রাম থানার পালিটা অঞ্চলে রতনপুর গ্রামে আসেন। কিভাবে তিনি এলেন? সেইসাথে কেন লালা রসের রিপোর্ট না থেকে রাজারহাট থেকে কেতুগ্রামে ফিরলেন তা ভাবিয়ে দিয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ প্রশাসন কে। ইতিমধ্যেই ওই মহিলা কে দুর্গাপুরের বেসরকারি করোনা হাসপাতালে মঙ্গলবার সকালে ভর্তি করানো হয়েছে। সেইসাথে করোনায় আক্রান্ত এই মহিলার সংপর্শে আসা ৩ জন পারিবারিক সদস্য কে বর্ধমান সদর হাসপাতালে আনা হয়েছে চিকিৎসার জন্য। এর বাইরে ওই মহিলার সংস্পর্শে আর কারা কারা এসেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেইসাথে গত সোমবার রাতেই কেতুগ্রামের পালিটা অঞ্চলে রতনপুর গ্রামে বাঁশের ব্যারিকেড গড়ে দিয়েছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। গ্রামবাসীদের ২১ দিন গ্রামের বাইরে যেতে বারণ করা হয়েছে। ৩ বর্গ কিলোমিটার বাঁশের এই ব্যারিকেডে পুলিশি কড়া নজরদারির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে। খন্ডঘোষ – সদর বর্ধমান – মেমারির পর কেতুগ্রামে করোনা পজিটিভ দেখা যাওয়ায় গোটা পূর্ব বর্ধমান জেলাজুড়ে চাপা আতঙ্ক দেখা গেছে।

More from GeneralMore posts in General »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.