Press "Enter" to skip to content

নারায়াণা মাল্টিস্পেশালিটি হসপিটাল, যশোর রোডে সফলভাবে ট্যাভি পদ্ধতিতে ভালভ প্রতিস্থাপন…..।

নিজস্ব প্রতিনিধি : কলকাতা, ১৩ মে, ২০২২: ট্রান্সক্যাথেটার অ্যাওর্টিক ভালভ ইমপ্লান্টেশন (ট্যাভি) হল একটি মিনিমাল ইনভেসিভ প্রক্রিয়া যেখানে পুরোনো, ক্ষতিগ্রস্ত ভালভটি অপসারণ না করে একটি নতুন ভালভ ঢোকানো হয়। একটি ধমনীতে একটি স্টেন্ট স্থাপন করার মত এই ট্যাভি পদ্ধতি’র সাহায্যে একটি ক্যাথেটারের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত ভালভের পাশে একটি সম্পূর্ণ সংকোচনযোগ্য ভালভ প্রতিস্থাপন করা হয়। একবার নতুন ভালভ স্থাপিত হলে, সেটি পুরোনো ভালভের লিফলেটগুলিকে পথের বাইরে ঠেলে দেয় এবং প্রতিস্থাপন করা ভালভের টিস্যু রক্ত প্রবাহ নিয়ন্ত্রণের কাজটি শুরু করে, এইভাবে হৃৎপিণ্ড থেকে সরবরাহ করা সহজতর হয়।

একজন ৭৮ বছর বয়স্ক রোগীর সিভিয়ার অ্যাওর্টিক স্টেনোসিস ধরা পড়েছিল। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে তাঁর কোমরবিডিটি`র কথা বিবেচনা করা হয়েছিল। সেই কারণে ওই রোগীর সার্জিক্যাল অ্যাওর্টিক ভালভ প্রতিস্থাপন অত্যন্ত ঝুঁকির ছিল। বর্তমানে অ্যাওর্টিক ভালভ প্রতিস্থাপনের প্রচলিত পদ্ধতি প্রয়োগ না করে তাই আমরা ওই রোগীকে ট্রান্সক্যাথেটার অ্যাওর্টিক ভালভ রিপ্লেসমেন্ট (টিএভিয়ার) বা ট্রান্সক্যাথেটার অ্যাওর্টিক ভালভ ইমপ্লান্টেশন (ট্যাভি) দিয়ে চিকিৎসা করার পরিকল্পনা করেছি, যা সর্বাধুনিক একটি মিনিমাল ইনভেসিভ পদ্ধতি। মহাধমনী`র এই ভালভ প্রতিস্থাপন প্রক্রিয়া অবশ্য প্রযুক্তিগতভাবে অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং পদ্ধতি। এতে রোগীকে স্থানীয় অ্যানেস্থেশিয়ার অধীনে রক্তহীন এবং ব্যথামুক্ত পদ্ধতিতে অপারেশন করা হয়। এর জন্য রোগীকে কেবলমাত্র ৪৮ ঘন্টা হাসপাতালে থাকতে হয়। ট্যাভি/টিএভিয়ার পদ্ধতিগুলি এখনও আমাদের দেশ সহ  আমাদের রাজ্যে খুব বিরল, তবে যে সমস্ত রোগীদের ওপেন হার্ট সার্জারির জন্য ঝুঁকি রয়েছে, তাদের জন্য এটি হল সবচেয়ে উদ্ভাবনী এবং সম্ভাব্য উপায়।

ডাঃ অরিওম কর (কনসালটেন্ট ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট) বলেন, “এখনও পর্যন্ত আমাদের দেশে ট্যাভি সার্জারি শৈশব অবস্থায় রয়েছে। আমরা এই চিকিৎসার প্রচারের জন্য উন্মুখ এবং ভবিষ্যতে এই ধরনের রোগীদের আরও সাহায্য করার ক্ষেত্রে ট্যাভি পদ্ধতি প্রয়োগের জন্য প্রয়াস চালিয়ে যাব এবং পাশাপাশি একটি দৃষ্টিভঙ্গি দিয়ে মানুষকে এই মর্মে সচেতন করব, যে এই পদ্ধতিটি সেভিয়ার সিম্পটম্যাটিক ক্যালসিফিক অ্যাওরটিক স্টেনোসিস রোগীর জন্য উপযুক্ত, যাদের প্রচলিত সার্জিক্যাল ভালভ প্রতিস্থাপনের জন্য মাঝারি থেকে উচ্চ মাত্রার ঝুঁকি রয়েছে।”
ডাঃ সুনন্দন সিকদার (কনসালটেন্ট ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজিস্ট) বলেন, “আমরা সেরা ফলাফল অর্জনের লক্ষ্যে অনেক মাইলফলক অতিক্রম করেছি। এর মধ্যে পারকিউটেনিয়াস ভালভ প্রতিস্থাপন, হার্ট ফেইলিউর রোগীদের ডিভাইস ইমপ্লান্ট এবং জটিল অ্যানজিওপ্লাস্টি রয়েছে। ইলেক্ট্রোফিজিওলজি স্টাডি (ইপি স্টাডি) এবং রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি অ্যাবলেশন (আরএফএ) নিয়মিতভাবে করা হচ্ছে, যেগুলির ফলাফলও অত্যন্ত চমৎকার।”


ডাঃ অরুনাংশু ঢোল (কনসালটেন্ট কার্ডিয়াক সার্জন) বলেন, “এমআইসিএস (মিনিম্যালি ইনভেসিভ কার্ডিয়াক সার্জারি) এর মাধ্যমে আমাদের অনেক কার্ডিয়াক কেস সফলভাবে করা হয়েছে। যেমন সিএবিজি, ভালভ রিপ্লেসমেন্ট (এভিআর/এমভিআর/ডিভিআর), এএসডি ক্লোজার, এলএ মিক্সোমা, এপিকার্ডিয়াক লেড রিপ্লেসমেন্ট ইত্যাদি। আমরা থোৱাকোস্কোপিক এএসডি ক্লোজার করছি যার মধ্যে প্রযুক্তিগত বাস্তব চ্যালেঞ্জ রয়েছে এবং এটি বিশ্বের কয়েকটি কেন্দ্রে অনুশীলন করা হচ্ছে। এখন আমরা ট্যাভিও করছি যা ইতিমধ্যে বিশ্বজুড়ে একটি স্বীকৃত পদ্ধতি হিসেবে চিহ্নিত।”

সাধারণত, ভালভ প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে একটি স্টারনোটমি সহ একটি ওপেন-হার্ট সার্জারি`র প্রয়োজন হয় যেখানে সার্জারি`র মাধ্যমে বুক খোলা হয়। ট্যাভি পদ্ধতিটি একটি ট্রান্সফিমোরাল পদ্ধতি। এতে ফিমোরাল ধমনী (কুঁচকিতে থাকা বড় ধমনী) এর মাধ্যমে খুব ছোট ওপেনিংয়ের সাহায্য করা যেতে পারে, যার জন্য বুকের হাড়কে কেটে বুকের উপর অপারেশনের প্রয়োজন হয় না।

শ্রী শুভাশিস ভট্টাচার্য (ফেসিলিটি ডিরেক্টর) বলেন, “আমাদের হাসপাতালের রোগীরাই তাদের জন্য সর্বোত্তম যত্ন ও চিকিৎসা প্রদানের বিষয়ে আমাদের সক্রিয় প্রচেষ্টার সাক্ষী। এই হাই-টেক সংযোজনগুলির মাধ্যমে আমরা তাদের চিকিৎসা সংক্রান্ত সমস্যাগুলির চিকিৎসার জন্য সবচেয়ে উন্নত প্রযুক্তি আনার প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতিকে আরও জোরদার করে চলেছি।”

নারায়ণা হেলথ সম্পর্কে:

সমস্ত সুপার-স্পেশালিটি টারশিয়ারি কেয়ার ফেসিলিটি`র মাধ্যমে চিকিৎসা জগৎ যা অফার করে, সেই সমস্তগুলির সাহায্যে নারায়ণা হেলথ হল সকলের জন্য ওয়ান-স্টপ হেলথকেয়ার ডেস্টিনেশন। ডাঃ দেবী শেঠি দ্বারা প্রতিষ্ঠিত এই হাসপাতালের সদর দপ্তর বেঙ্গালুরুতে। অপারেশনাল বেড-এর হিসেবে নারায়ণা হেলথ গ্রুপ দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান। বেঙ্গালুরুর এনএইচ হেলথ সিটিতে ২০০০ সালে প্রায় ২২৫টি অপারেশনাল বেড নিয়ে এই ফেসিলিটিটি প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এই প্রতিষ্ঠানটি আজ ভারতের ২৩টি হাসপাতাল এবং ৭টি হার্ট সেন্টারের নেটওয়ার্ক নিয়ে মাল্টিস্পেশালিটি টারশিয়ারি ও প্রাইমারি হেলথকেয়ার ফেসিলিটি`র একটি চেইন পরিচালনা করে এবং বিদেশের কেম্যান আইল্যান্ডে একটি আন্তর্জাতিক মানের হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেছে নারায়ণা হেলথ গ্রুপ। এই হাসপাতালের তার সমস্ত কেন্দ্র জুড়ে প্রায় ৫,৯০০টি অপারেশনাল বেড রয়েছে এবং এই সংখ্যা ৬,৮০০-এর বেশিতে পৌঁছানোর সম্ভাবনা রয়েছে৷ (বিশদ বিবরণের জন্য, www.narayanahealth.org ওয়েবসাইট দেখুন)

More from HealthMore posts in Health »
More from InternationalMore posts in International »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.