Press "Enter" to skip to content

তেনজিং নোরগে সব ধরনের প্রতিবন্ধকতাকে পরাজিত করে পৃথিবীর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ ‘মাউন্ট এভারেস্ট’ জয় করলেন……..

আজকের দিনে এভারেস্ট চূড়ায় পা রেখেছিলেন তেনজিং………

বাবলু ভট্টাচার্য: ঢাকা, মেঘ ভেদ করে আকাশের বুক ছুঁয়েছে এভারেস্টের চূড়া। সমতলভূমির মানুষ সেই চূড়ায় উঠে আকাশ ছোঁবে– এমন স্বপ্ন ছিল বহুদিনের। বহু পর্বতারোহী সেই স্বপ্ন পূরণের সংকল্প নিয়ে এভারেস্টের চূড়া সামিটের চেষ্টা করেছেন। কিন্তু কাজটি ছিল দুঃসাধ্য, তাই বারবার তারা ব্যর্থ হয়েছেন।

তখন মনে হয়েছিল পৃথিবীর সর্বোচ্চ চূড়া স্পর্শ করা কোন মানুষের পক্ষে হয়ত সম্ভব হবে না, স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যাবে। কিন্তু ১৯৫৩ সালের আজকের দিনে (২৯ মে) দুই সাহসী পর্বতারোহী এডমণ্ড হিলারী আর তেনজিং নোরগে প্রচণ্ড তুষারপাত, ঝোড়ো হাওয়া, খাদ্যস্বল্পতা– এক অর্থে সব ধরনের প্রতিবন্ধকতাকে পরাজিত করে পৃথিবীর সর্বোচ্চ স্থানে পদার্পণ করলেন তারা। পৃথিবীর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ ‘মাউন্ট এভারেস্ট’ জয় করলেন। পদার্পণ করলেন ২৯,০২৮ ফুট উচ্চতায়। এভারেস্ট জয়ের খবর পেয়ে তাদের সম্বর্ধনা দেবার জন্য সুদূর লন্ডন থেকে রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ নেপালে এসে তাদেরকে বীর হিসাবে আখ্যায়িত করেন।

হিলারি-কে ‘নাইট’ উপাধিতে ভূষিত করেন এবং তেনজিংকে ‘জর্জ পদক’ প্রদান করা হয়। মাউন্ট এভারেস্ট জয়ের ফলে তেনজিং-হিলারিকে ঘিরে নেপাল ও ভারতে জনমানসে প্রচন্ড উচ্ছ্বাস তৈরি হয়।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.