Press "Enter" to skip to content

জার্মানিতে চিড়িয়াখানা টিকিয়ে রাখতে কিছু প্রাণীকে মেরে ফেলার চিন্তাটা একেবারেই শেষ বিকল্প- মি.কাসপারি……

Spread the love

করোনাভাইরাস : কিছু প্রাণী মেরে অন্য প্রাণীদের খাওয়ানোর পরিকল্পনা করছে জার্মান চিড়িয়াখানা

বাবলু ভট্টাচার্য: ঢাকা, করোনাভাইরাস সংকটের কারণে জার্মানির কিছু চিড়িয়াখানা এমনই অর্থনৈতিক সমস্যায় পড়েছে যে – কিছু প্রাণীকে হয়তো এখন সেই চিড়িয়াখানারই অন্য প্রাণীর খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করা হতে পারে। জার্মানির উত্তরাঞ্চলের নিউমুনস্টার চিড়িয়াখানার পরিচালক ভেরেনা কাসপারি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, “প্রথমে যে প্রাণীগুলো মেরে ফেলা হবে তার একটা তালিকাও তৈরি করেছি আমরা।” করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকানোর জন্য জার্মানিতে আরোপ করা লকডাউনে চিড়িয়াখানাগুলো হয়ে পড়েছে দর্শকশূন্য। ‍এক হিসেবে বলা হয়, তাদের সাপ্তাহিক লোকসান হচ্ছে অন্তত ৫ লক্ষ ইউরো। আর্থিক সংকটে পড়ে চিড়িয়াখানাগুলো সরকারি অনুদান প্রার্থনা করছে। অনেকে কর্মচারীদের বেশিরভাগকে বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছে। মি.কাসপারি বলছেন, চিড়িয়াখানা টিকিয়ে রাখতে কিছু প্রাণীকে মেরে ফেলার চিন্তাটা একেবারেই শেষ বিকল্প। কিন্তু সেটা করলেই যে আমাদের আর্থিক সমস্যা মিটবে তা-ও নয়। তিনি বলছেন, সীল এবং পেংগুইনের মত প্রাণীর প্রতিদিন বিপুল পরিমাণ তাজা মাছ দরকার। “সেরকম সংকট হলে আমাদের কিছু প্রাণীকে মানবিকভাবে মেরে ফেলতে হবে, অন্তত তাদের খেতে না দেয়ার চেয়ে সেটা ভালো হবে। আরেকটা হতে পারে কিছু প্রাণীকে অন্য প্রাণীর খাদ্য হিসেবে দিয়ে দেয়া।“ জার্মানির চিড়িয়াখানাগুলোর সমিতি বলছে, এটা অন্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মতো যখন খুশি বন্ধ করে দেয়া যায় না।

প্রাণীদের প্রতিদিন খাবার দিতে হয়, যত্ন নিতে হয়। কোন কোন খাঁচা সার্বক্ষণিকভাবে ২০ ডিগ্রির চেয়ে বেশি গরম রাখতে হয়।
সৌজন্যেঃ বিবিসি

More from GeneralMore posts in General »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *