Press "Enter" to skip to content

গরমে ডাবের জলে ই শান্তি। এই জল পান করলে সানস্ট্রোকে র আশঙ্কা কমে যায়……

Spread the love

মৃদুলা ঘোষ: কলকাতা, ১১মে, ২০২০। বৈশাখ শেষের পথে জৈষ্ঠ্যে র দাবদাহ মাথায় নিয়ে এই মুহূর্তে হয়তো আমাদের ঘুরে বেড়াতে হচ্ছে না, কিন্তু, রোদের তাপে জ্বলে পুড়ে যাওয়ার কাউন্ট ডাউন শুরু হয়ে গেছে। তাই বাড়ি বসে বা, বাড়ি র বাইরে এই সময়, অমৃত সম শান্তি দেবে ডাবে র জল। ডাবের জল আমাদের তৃষ্ণা মেটায়, অপরদিকে ক্লান্ত শরীরে পটাশিয়ামের পরিমাণ বাড়ানো তে বিশেষ ভূমিকা নেয়। একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, নোনা মাটি র এই ফলে র জল যদি নিয়ম করে খাওয়া যায়, তবে সানস্ট্রোকে র আশঙ্কা কমে যায়। শুধু তাই নয়, আ্যন্টি অক্সিডেন্ট, আ্যমাইনো আ্যসিড, ভিটামিন-বি কমপ্লেক্স, ভিটামিন-সি, আয়রন, ক্যালশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, জিঙ্ক সমৃদ্ধ ডাবে র জল শরীর গঠনে বিশেষ ভূমিকা নেয়।

এই সবকটি উপাদান আমাদের সুস্থ থাকতে প্রয়োজন। তাই লকডাউন বাজারে তাপমাত্রা যত ই বাড়ুক ডাবে র জল আপনাকে অবশ্যই স্বস্তি দেবে। হাড়কে মজবুত ও সচল রাখে…. ক্যালশিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ ডাবের জল নিয়মিত পান করলে, হাড় অতিমাত্রায় শক্ত পোক্ত হয়, হাড়ের নিজস্ব ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়, অস্থিসন্ধি র সচলতার জন্য নিজস্ব কর্মক্ষমতা ও বাড়তে থাকে। হৃদযন্ত্রে র কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি…. মানবশরীরে ক্ষতি করে কোলেস্টেরল বা এলডিএল এর পরিমাণ কমিয়ে হার্ট এর স্বাস্থ্যের উন্নতি তে ডাবের জল অনবদ্য। তার সাথে বন্ধু কোলেস্টেরল এর পরিমাণ বাড়িয়ে হার্ট কে সুস্থ থাকতে সাহায্য করে। ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রিত হয়….. ডাবের জলে থাকে আ্যমাইনো আ্যসিড ও ডায়টারী ফাইবার যা ইনসুলিনের কর্মক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। এর জন্য ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রনে আসে। এই মত পেশ করেছে, ২০১২ সালে র জার্নাল ফুড অ্যান্ড ফাংশন গবেষণায়। হজম ক্ষমতার বৃদ্ধি…. প্রচন্ড গরমে সাধারণ খাওয়ার পরেই অস্বস্তি হতে থাকে। গরমে র দিনগুলো তে নিয়মিত ডাবে র জল খেতে পারলে পাচক রস ক্ষরণে ভারসাম্য থাকে ফলে, পেট গরম, বদহজম, গ্যাস অম্বল এর সমস্যা আপনাকে ব্যতিব্যস্ত করবে না।

একই ভাবে ডাবের জলে থাকা এনজাইম মেটাবলিজম এর উন্নতি তে সাহায্য করে বলে, সঠিক ভাবে খাবার হজম হয়ে, শরীরে ফ্যাট জমতে পারে না।, ফলে, বয়স অনুসারে দৈহিক ওজন ও ঠিক থাকে। ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণ করে…. যাদের বংশে হাই ব্লাড প্রেসার এর ইতিহাস আছে, তাদের নিয়মিত ডাবের জল খাওয়া উচিত। এই জলে র অন্তর্ভুক্ত ভিটামিন-সি, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম একত্রে নিয়ন্ত্রিত রাখে, তাই এই সকল গুন সমৃদ্ধ ডাবের জল ঐ সমস্ত মানুষ কে সুস্থ রাখবে। শরীরে জলের ঘাটতি দূর করবে… গরম মানেই ডায়রিয়া, বমি, ক্লান্তি। ডাবের জলে ইলেকট্রোলাইট কম্পোজিশন শরীরের ভিতরে খনিজ ঘাটতি মেটাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তাই, গরমে ডাব কে রোজ কার সঙ্গী করুন। অন্যদিকে, শরীরের ভিতরে জমতে থাকা টক্সিন উপাদান যত প্রস্রাবের সাথে বেরিয়ে যায়, তত শরীর রোগমুক্ত চনমনে হয়ে ওঠে। আকর্ষ নীয় কারন… শরীরের বয়স রুখে দিতে আমরা সবাই আগ্রহী।

তাই, সাইটোকাইনেসিস নামে একটি আ্যন্টি এজিং উপাদান সমৃদ্ধ ডাবের জল নিয়মিত খেতে পারলে, শরীরের উপর বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না, তার সাথে ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। অতএব, আর দেরী নয়। লকডাউন তো, বাইরে বেড়োনো বাড়ন!বাড়ি র সামনের রাস্তা দিয়ে যাওয়া ডাব ওয়ালা কে ডেকে নিন অথবা বাজারে গিয়ে ডাব কিনে নেওয়ার এটুকু ছাড় গৃহবন্দী তেও পেয়ে যাবেন।

More from GeneralMore posts in General »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *