Press "Enter" to skip to content

আদিবাসী গ্রামে প্রথম কোন শিক্ষা কেন্দ্র…..।

Spread the love

নিজস্ব প্রতিনিধি : কলকাতা, ২৪ মে,২০২৩: শিল্পের পাশাপাশি সমাজের শিক্ষা ব্যাবস্থা কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা থাকে, তখন এক নতুন ভবিষ্যতের জন্ম নিতে শুরু করে। শিক্ষার রশ্মিকে দেশের অবহেলিত অঞ্চলে ছড়িয়ে দিতে সাই গ্রুপের সিএসআর শাখা সুপার শক্তি ফাউন্ডেশন চেস্টা করে চলেছে। আজ পশ্চিম বর্ধমানের জামুড়িয়ার প্রত্যন্ত দামোদরপুর আদিবাসী গ্রামে এক শিক্ষাকেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্ভোদন করে তারা। আনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সংস্থার দুই ডিরেক্টর সুদীপ্ত ভট্টাচার্য, চেতন ইয়াগ্নিক, সিএসআর নোডাল অফিসার ইসান্ত জৈন সহ অন্যান্যরা।

গ্রামে মোট ২৫০ টি পরিবারের বাস। সমস্ত পরিবারই তফসিলি উপজাতি সম্প্রদায়ের। গ্রামবাসীদের মাত্র ২৬ শতাংশই শিক্ষিত। কাছাকাছি সরকারি স্কুল থাকলেও গ্রামের অনেক ছেলেমেয়েরা দারিদ্র্যের অভাবে ভালো শিক্ষকের সংস্পর্শে আসতে পারে না। সুপারশক্তি ফাউন্ডেশন এই গ্রামের কথা জানতে পেরে সেখানে একটি শিক্ষা কেন্দ্র করার সিদ্ধান্ত নেয়। উদ্দেশ্যে শিক্ষার প্রসার। যদিও দামোদরপুর গ্রামে এই প্রথম কোন শিক্ষা কেন্দ্র তৈরি করা হল।
৯০০ বর্গফুট এই কেন্দ্রে দুটি ক্লাস রুম রয়েছে। শিক্ষা কেন্দ্রটিতে সমস্ত মৌলিক সুযোগ-সুবিধা রাখা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ৫ থেকে ১৫ বছর বয়সী শিক্ষার্থী এখানে পড়াশুনো করতে পারবে। বর্তমানে ৪০ জন শিক্ষার্থী এখানে পড়তে আসবে, এমনটাই জানিয়েছে কতৃপক্ষ। ওই ছাত্রছাত্রীদের গাইড করার জন্য রয়েছেন ২ জন শিক্ষক এবং একজন কেয়ারটেকার। শিক্ষকদের বেতন, শিক্ষার্থীদের জন্য দুপুরের খাবার, বই এবং অন্যান্য বিবিধ খরচ সহ কেন্দ্রের সমস্ত রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচালনার খরচ বহন করবে ফাউন্ডেশন । সুপারশক্তি ফাউন্ডেশন এই শিক্ষা কেন্দ্র তৈরি করতে ২৩ লক্ষ টাকা খরচ করেছে এবং আগামী দিনে যে সমস্ত খরচ করা হবে তা বহন করবে জানিয়েছেন তারা৷

More from InternationalMore posts in International »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *