Press "Enter" to skip to content

১৯২১ সালে ‘সুরেখা হরণ’ নির্বাক চলচ্চিত্রের অভিনেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন শান্তারাম…..।

জন্মদিনে স্মরণঃ ভি শান্তারাম

বাবলু ভট্টাচার্য : দেহ ব্যবসায়ী ময়না। এক মধুচক্রে হানা দিতে গিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ অফিসার গণপত। কড়া ধাতের অফিসার শেষে যৌনকর্মীর প্রেমে পড়ে যায়। কিন্তু এ প্রেম কি কোনওদিন পরিণতি পাবে?

এমন কাহিনি ১৯৩৯ সালে পর্দায় তুলে ধরার সাহস দেখিয়েছিলেন তিনি। আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ছবিটি দেখেই মুগ্ধ হয়ে যান চার্লি চ্যাপলিন। যেচে ভারতীয় পরিচালকের সঙ্গে করমর্দন করতে এগিয়ে আসেন। প্রশংসায় ভরিয়ে দেন তাকে।

জানেন কার কথা বলা হচ্ছে? এ কাহিনি ভারতীয় চলচ্চিত্রের ‘আন্নাসাহেব’ শান্তারাম রাজারাম বানকুদ্রে ওরফে ভি শান্তারামের। যার ‘মানস’ দেখে বাকরুদ্ধ হয়েছিলেন হলিউডের কিংবদন্তীরাও।

প্রথাগত পড়াশোনা বেশি দূর গড়ায়নি শান্তারামের। কারণ ভাগ্য তাঁর জন্য সাজিয়ে রেখেছিল অন্য পথ। সেই পথেই বাবুরাও পেন্টারের মহারাষ্ট্র ফিল্ম কোম্পানিতে প্রবেশ। প্রথমে শুটিংয়ের টুকটাক কাজ করতেন। কিন্তু সুদর্শন চেহারার যুবককের সোজা নায়কের চরিত্র অফার করেন বাবুরাও।

১৯২১ সালে ‘সুরেখা হরণ’ নির্বাক চলচ্চিত্রের অভিনেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন শান্তারাম।

অচিরেই তিনি বুঝে যান এটাই তার একমাত্র ভবিষ্যৎ। অভিনয়ের থেকেও বেশি নজর দেন পরিচালনা ও প্রযোজনায়। বন্ধুদের সঙ্গে মিলে তৈরি করেন ‘প্রভাত ফিল্ম কোম্পানি’। ১৯৩২ সালে তিনিই মারাঠি চলচ্চিত্র জগতকে উপহার দেন প্রথম সবাক চলচ্চিত্র ‘অযোধ্যাচা রাজা’।

সেই শুরু। তারপর সিনেমা তৈরির পালা অব্যাহত থাকে। মাঝে যৌথ প্রযোজনা থেকে বেরিয়ে এসে তৈরি করেন রাজকমল কলামন্দির। যা পরবর্তীকালে প্রসিদ্ধ হয় রাজকমল স্টুডিও নামে। যেখানে তৈরি হয়েছে ‘ঝনক ঝনক পায়েল বাজে’, ‘দো আখেঁ বারা হাত’, ‘নবরং’. ‘পিঞ্জরা’র মতো সিনেমা।

প্রায় ছয় দশক চলচ্চিত্র জগতে কাটিয়েছেন ভি শান্তারাম। পেয়েছেন ‘দাদা সাহেব ফালকে’, ‘পদ্মবিভূষণ’-এর মতো সম্মান। একাধিকবার জাতীয় পুরস্কার পেয়েছে তার ছবি।

সিনেমার জগৎই ছিল তার ধ্যানজ্ঞান। মারাঠী ছবি ‘মানস’- এর জন্য প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন চার্লি চ্যাপলিনের কাছ থেকেও। পাশাপাশি অভিনেতা জিতেন্দ্র ও অভিনেত্রী রাজশ্রী, ভি.শান্তারামের হাত ধরেই বলিউড জগতে পা রাখেন।

ভারতীয় সিনেমাকে সাদা-কালো যুগ থেকে রঙিন জমানায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে শান্তারাম অগ্রণী ভুমিকা পালন করেন ৷

১৯৯০ সালের ৩০ অক্টোবর মুম্বাইতে মৃত্যুবরণ করেন শান্তারাম।

ভি শান্তারাম ১৯০১ সালের আজকের দিনে (১৮ নভেম্বর) মহারাষ্ট্রের কোলাপুরে জন্মগ্রহণ করেন।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.