Press "Enter" to skip to content

ব্যক্তিজীবনে নিতান্তই এক আটপৌরে মা ও গৃহবধূ আশাপূর্ণা দেবী ছিলেন পাশ্চাত্য সাহিত্য ও দর্শন সম্পর্কে সম্পূর্ণ অনভিজ্ঞ। বাংলা ছাড়া দ্বিতীয় কোনও ভাষায় তাঁর জ্ঞান ছিল না…..।

Spread the love

জন্মদিনে স্মরণঃ আ শা পূ র্ণা দে বী

বাবলু ভট্টাচার্য : বিংশ শতাব্দীর বাঙালি জীবন, বিশেষত সাধারণ মেয়েদের জীবনযাপন ও মনস্তত্ত্বের চিত্রই ছিল তাঁর রচনার মূল উপজীব্য।

ব্যক্তিজীবনে নিতান্তই এক আটপৌরে মা ও গৃহবধূ আশাপূর্ণা ছিলেন পাশ্চাত্য সাহিত্য ও দর্শন সম্পর্কে সম্পূর্ণ অনভিজ্ঞ। বাংলা ছাড়া দ্বিতীয় কোনও ভাষায় তাঁর জ্ঞান ছিল না। বঞ্চিত হয়েছিলেন প্রথাগত শিক্ষালাভেও। কিন্তু গভীর অন্তর্দৃষ্টি ও পর্যবেক্ষণশক্তি তাঁকে দান করে বাংলা সাহিত্যের অন্যতম শ্রেষ্ঠ লেখিকার আসন।

তাঁর প্রথম ‘প্রতিশ্রুতি-সুবর্ণলতা-বকুলকথা’ উপন্যাসত্রয়ী বিশ শতকের বাংলা সাহিত্যের শ্রেষ্ঠ রচনাগুলির অন্যতম বলে বিবেচিত হয়। তাঁর একাধিক কাহিনি অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে জনপ্রিয় চলচ্চিত্র।

দেড় হাজার ছোটগল্প ও আড়াইশো-র বেশি উপন্যাসের রচয়িতা আশাপূর্ণা সম্মানিত হয়েছিলেন ‘জ্ঞানপীঠ’ পুরস্কারসহ দেশের একাধিক সাহিত্য পুরস্কার, অসামরিক নাগরিক সম্মান ও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্মানিক ডক্টরেট ডিগ্রিতে।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাঁকে প্রদান করেন সর্বোচ্চ সম্মান ‘রবীন্দ্র পুরস্কার’। ভারত সরকার তাঁকে ভারতের সর্বোচ্চ সাহিত্য সম্মান ‘সাহিত্য অকাদেমী ফেলোশিপে’ ভূষিত করেন।

১৯৯৫ সালের ১৩ জুলাই গড়িয়ার কানুনগো পার্কে লেখিকার জীবনাবসান হয়।

আশাপূর্ণা দেবী ১৯০৯ সালের আজকের দিনে (৮ জানুয়ারি) উত্তর কলকাতার পটলডাঙায় জন্মগ্রহণ করেন।

More from Writer/ LiteratureMore posts in Writer/ Literature »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Mission News Theme by Compete Themes.