Press "Enter" to skip to content

বিপণনের দুনিয়ায় নতুন দিশা বারগেন বিজ….।

Spread the love

শ্রীজিৎ চট্টরাজ: কলকাতা, ১০ অক্টোবর ২০২১। কথায় বলে, কারও সর্বনাশ, কারও পৌষ মাস। খুচরো বাজারে চ্যালেঞ্জ নিয়ে এক যুগ আগেই এসেছে অনলাইন ব্যবসা। শুরু বই বিক্রি দিয়ে। ক্রমশঃ ছড়িয়ে পড়ে জিরে টু হীরে ব্যবসায়। করোনা প্রবাহে লকডাউনের জেরে বিশ্বব্যাপী খোলা বাজার যখন স্তব্ধ হয়ে যায়, তখন চাহিদার বাজার গ্রাস করে অনলাইন ব্যবসা। ঘরে বসে নিরাপদ শর্তে চাহিদার বস্তুটি সহজে শুধু মিলছে, তা নয়, মধ্যসত্ত্বভোগীদের খপ্পর এড়িয়ে অনেক ছাড়ে চাহিদার বস্তুটি ক্রেতা পেয়ে যাচ্ছেন তখন তাহারে রোধিবে কে?

সমীক্ষা বলছে, ২০১০ এ যখন অনলাইন ব্যবসার সূচনা হয়, তখন আমেরিকায় ব্যবসা ছিল ৬ শতাংশ। ২০২০ সালে সেই ব্যবসার পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়ে হয় ৩১শতাংশ।চিনের এক পঞ্চমাংশ ব্যবসা হচ্ছে অনলাইন প্রক্রিয়ায়।ভারতে ২০১৭ সালে মোট ৫০ হাজার কোটি টাকার খুচরো বাজারে অনলাইন দখল ছিল মাত্র ২শতাংশ। আজ যা বহুগুণ বেড়েছে। বিশ্বজুড়েই আজ অনলাইন ব্যবসা কর্পোরেট দখলে।

সম্প্রতি কলকাতার ঐতিহ্যবাহী  টলি ক্লাবে আয়োজিত হয়েছিল এক সাংবাদিক সম্মেলন। আয়োজক বারগেন বিজ নামে এক ডিজিটাল বিপণন সংস্থা। নব্য সংস্থার ভিত গড়ে উঠেছে দেশ বিদেশের অভিজ্ঞতালব্ধ বর্ষীয়ান কুশলী হিসাববিদ অতনু করের নেতৃত্ত্বে। আর এক অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ড: সুদীপ বোস জানান,অনলাইন ব্যবসার ক্ষেত্রে তাদের সংস্থা বাংলায় প্রায় হাজার জনের কর্মসংস্থান দেবে। বাজার চলতি অনলাইন বিপণন সংস্থার সঙ্গে এই সংস্থার মৌলিক এক পার্থক্য আছে। এখানে অনলাইন সংস্থার সিদ্ধান্তে ক্রেতা বাধ্য নন কেনাকাটায়। তাঁদের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে এই সংস্থায়। এখানে অ্যাপের মাধ্যমে ক্রেতা দরদাম করার সুযোগ পাবেন। দিনে প্রায় ছবার ক্রেতা সাধারণ দরদাম করে কেনাকাটা করতে পারবেন।
পণ্য তালিকাতেও থাকবে সমাজবদ্ধ জীবনের দায়বদ্ধতা। পণ্য তালিকায় থাকবে দেশের লোক শিল্পের মনোগ্রাহী পণ্য সম্ভার। থাকছে অর্গানিক পণ্য। শাড়িসহ পোষাক সম্ভারের পাশাপাশি ঘর সাজানোর জিনিষ থাকছে তালিকায়। অসংগঠিত শিল্প ও শিল্পীদের স্বনির্ভর করার এক প্রচেষ্টায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বারগেন বিজ। সংস্থার অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা শ্রীমতী ইন্দ্রানী কর জানালেন, ক্ষুদ্র শিল্পোদ্যোগীদের প্রতিষ্ঠিত করার প্রয়াস চালাবে তাঁদের সংস্থা।
চলতি বছরে সীমিত প্রচেষ্টায় সংস্থা সীমিত কিছু ক্ষুদ্র শিল্পোদ্যোক্তাদের নিয়ে বিপণন শুরু হলেও আগামী বছরের মাঝামাঝি আমেরিকা ও ইউরোপের বাজারে ভারতের ঐতিহ্যপূর্ণ পণ্যের বিপণন শুরু হবে।একদিকে বেকারদের কর্মসংস্থান, অন্যদিকে দেশের অসংগঠিত ক্ষেত্রের পণ্য উৎপাদকদের একটি নিশ্চিত বাজার তৈরি করে সামাজিক দায়বদ্ধতার নিদর্শন রাখবে বারগেন বিজ। ক্রেতা স্বার্থে এই পরিকল্পনার যে সাধু প্রয়াস তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে।

More from GeneralMore posts in General »
More from InternationalMore posts in International »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Mission News Theme by Compete Themes.