Press "Enter" to skip to content

বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় একজন লেখক মুহাম্মদ জাফর ইকবাল। তিনি একাধারে লেখক শিশু সাহিত্যিক এবং কলামিস্ট…..।

শু ভ জ ন্ম দি ন মু হা ম্ম দ জা ফ র ই ক বা ল

বাবলু ভট্টাচার্য :  বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় একজন লেখক মুহাম্মদ জাফর ইকবাল। তিনি একাধারে লেখক শিশু সাহিত্যিক এবং কলামিস্ট। তার আরেকটি বড় পরিচয় তিনি অন্যতম জনপ্রিয় লেখক হুমায়ুন আহমেদ এবং জনপ্রিয় কার্টুনিস্ট আহসান হাবিবের সহোদর।

পিতা ফয়জুর রহমান একজন পুলিশ কর্মকর্তা হওয়ায় ছেলেবেলাতেই ভ্রমণ করেছেন বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা। ছেলেবেলায় পিতার কাছ থেকেই লেখালেখির হাতে খড়ি। সাত বৎসর বয়সেই প্রথম সাইন্স ফিকশন লেখেন তিনি। সাপ্তাহিক বিচিত্রা পত্রিকায় প্রকাশিত ‘কাল্পনিক ভালবাসা’ গল্পের জন্য লেখালেখির জগতে পরিচিত হয়ে উঠেন তিনি।

তিনি ১৯৬৮ সালে বগুড়া জেলা স্কুল থেকে এসএসসি এবং ১৯৭০ সালে ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরু হলে তার পিতা পাক হানাদার বাহিনীর হাতে শহীদ হন।

১৯৭২ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞানে ভর্তি হন। ১৯৭৬ সালে তিনি পি.এইচ.ডি ডিগ্রি লাভের উদ্দেশ্যে ওয়াশিংটন যান এবং সেখানে তার সাথে দেখা হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহপাঠী ইয়াসমিন হকের সাথে। তার এক বছর পরই তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। ১৯৯২ সালে তিনি জীবনের বাকী দিনগুলো দেশে কাটানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে স্ত্রী এবং দুই সন্তানসহ দেশে ফিরে আসেন।

১৯৯৪ সালে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক এবং বিভাগীয় প্রধান হিসেবে যোগদান করেন। এর পূর্বে তিনি দেশের বাইরে বিভিন্ন স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করেছিলেন।

মুহাম্মদ জাফর ইকবাল তার কলেজ জীবন থেকেই সরাসরি সাহিত্যচর্চ্চার সাথে যুক্ত হন। তার রচিত কিশোর এডভেঞ্চার সাহিত্যগুলো জনপ্রিয়তা লাভ করে। ১৯৭৬ এর পর উচ্চতর শিক্ষা লাভের জন্য দেশের বাইরে গেলে সাহিত্যচর্চ্চা বাধাগ্রস্থ হয়। তিনি শিশু-কিশোরদের মাঝে বিজ্ঞানভিত্তিক শিক্ষা এবং মুক্তচিন্তার উপর জোর প্রদান করেন। ধর্মীয় মৌলবাদের বিরুদ্ধে অনঢ় অবস্থানের কারনে তাকে মৌলবাদীদের হুমকির সম্মুখিন হতে হয়।

তার সাহিত্যকর্মগুলো ছোটদের পাশাপাশি বড়দের কাছেও সমান জনপ্রিয়। তার কিছু সাহিত্যকর্ম নিয়ে পরবর্তিতে সিনেমা তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে ‘দিপু নাম্বার টু’ ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছিল।

মুহাম্মদ জাফর ইকবাল ও মুহাম্মদ কায়কোবাদের উদ্যোগেই বাংলাদেশে গণিত উৎসবের সূচনা হয়। যার ফলে ২০০৫ সালে প্রথমবারের মত বাংলাদেশ International mathematics Olympiad-এ যোগ দান করে।

মুহাম্মদ জাফর ইকবাল ১৯৫২ সালের আজকের দিনে (২৩ ডিসেম্বর) সিলেটে জন্মগ্রহণ করেন।

More from BooksMore posts in Books »
More from InternationalMore posts in International »
More from Writer/ LiteratureMore posts in Writer/ Literature »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.