Press "Enter" to skip to content

কদবেল বহুরোগ সহ মহিলাদের হরমোন সংক্রান্ত সমস্যা দূর করে এবং স্তন ও জরায়ু ক্যান্সার নিরাময় করে…..।

?#কদবেল?

সুস্মিতা দাস : কলকাতা, ১৭, অক্টোবর, ২০২০। কদবেল নিয়ে কিছু লিখতে গেলেই ছেলেবেলার দুপুরের কথা মনে পরে। এমন বোধ হয় শুধু আমার নয় আপনাদের অনেকেরই হয়। শীতের দুপুর গুলো কদবেল মাখা নিয়ে উঠানে বসে নরম রোদের কতো গল্প মনে পরে যায়। শুধু কদবেল মাখা কেন মায়ের হাতের কদবেলের আচার কাগজে নিয়ে ঘুরে ঘুরে খাওয়া। মাঝে মাঝে আচারের বয়াম থেকে আচার চুরি করতাম বন্ধুদের জন্য।

মা ঠিক টের পেয়ে যেতো। আর বলতো রাতে পেট ব্যাথা করলে একদম বলতে আসবিনা। প্রায় বেশি খেয়ে নিয়ে সত্যিই পেট ব্যাথা করতো, মারের ভয়ে কিছু বলতাম না। এখন সেই সব দিন গুলোর কথা ভেবে খুব মন খারাপ হয়ে যায়। এখন আর সেই ভাবে পাওয়াও যায় না আর ছোট বেলার অনুভুতি গুলোও ফিরে আসেনা। তবে এখনো মাঝে মধ্যে বাজারে পেলে নিয়ে আসি, ভালো করে মেখে ছুটির দিন দুপুরে নিয়ে বসি। কিন্তু আসে পাশে আর প্রিয় বন্ধুদের পাইনা আর ফিরে আসেনা ছেলেবেলার দুপুর গুলো আর সেই অনুভুতি গুলো। পুরনো স্মৃতি মনে করে অনেক কথা বলে ফেললাম।

?# কদবেল সম্পর্কে কিছু তথ্য ?

কদবেলকে ইংরেজিতে wood Apple বলা হয়। এই গাছের বৈজ্ঞানিক নাম Feronia Limonia Swingle. কদবেল গাছ লম্বায় ২০-৫০ ফুট উঁচু হয়। এই গাছের পাতা কামিনি ফুলের পাতার মত। পত্রদন্ডের ২ দিকে ৫-৭ পাতা থাকে। কদবেল গাছ পাতা ঝরা উদ্ভিদ। কদবেল সাধারণত ২-৫ ইঞ্চি ব্যাস বিশিষ্ট টেনিস বলের মতো হয়। অতিরিক্ত পেকে গেলে এই ফলের উপরের অংশ কালচে রং ধারণ করে । এই গাছে ছোট কাঁটা থাকে। আগস্ট-নভেম্বর মাসে থেকে ফল পাকতে শুরু করে । এই ফলের খোলস অনেক শক্ত হয়ে থাকে।সংস্কৃত ভাষায় এর নাম কপিত্থ। কদবেল গাছে সাদা রঙের ফুল হয়।

?#পুষ্টিগুণ?

কতবেলে প্রচুর পরিমাণে আমিষ, শর্করা, চর্বি, ক্যালসিয়াম , ভিটামিন বি ও সি রয়েছে।

? #উপকারিতা?

প্রতিটি ফলেই নানা ধরনের উপকারী গুণ রয়েছে, কদবেলও কিন্তু ব্যতিক্রম নয়।
কদবেলের আছে নানা পুষ্টিগুণ।
ব্রণ হলে কাঁচা কদবেলের রস মুখে মাখলে বেশ উপকার পাওয়া যায়। কদবেল পাতার নির্যাস শ্বাসযন্ত্রের কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। দুধ এবং চিনি দিয়ে কদবেলের পাতা মিশিয়ে খাওয়ালে শিশুদের পেটের ব্যথার নিরাময় করে ।কদবেলের ফুল শুকিয়ে পাউডার করে সারা বছর সংরক্ষণ করে রাখা যায়। ফলটি দীর্ঘস্থায়ী কোষ্ঠবদ্ধতা, দীর্ঘস্থায়ী আমাশা দূর করে।

এই ফল রক্ত পরিষ্কার করতে সাহায্য করে, বুক ধড়ফড় এবং রক্তের নিম্নচাপ রোধেও সহায়ক। চিনি বা মিছরির সঙ্গে কদবেল পাউডার মিশিয়ে খেলে সঙ্গে শরীরের শক্তি বৃদ্ধি হয় এবং রক্তাল্পতাও দূর হয়। কদবেল মহিলাদের হরমোনের অভাব সংক্রান্ত সমস্যা দূর করে থাকে।
কদবেল স্তন ও জরায়ু ক্যান্সার নিরাময় করে থাকে।

ছবি ~ গুগল থেকে সংগ্রহ করা।

More from GeneralMore posts in General »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.