Press "Enter" to skip to content

“একটু খুশির সন্ধানে” — পরিচালনায় চক্ সুলতান নবীন যুব সংঘ ও হিরণ্যবাটী নবারুণ সমিতি….।

নিজস্ব প্রতিনিধি: ভয়াবহ অতিমারী কোভিড-১৯ এর ভয়াল বাতাবরণের মধ্যেই পরিসমাপ্তি ঘটল ধৈর্য, সংযম ও বরকতের মাস ‘মাহে রমজান’ । দীর্ঘ একমাস যাবৎ সিয়াম পালনের মাধ্যমে পবিত্র রমজান মাস আমরা অতিবাহিত করলাম । অবশেষে এল সেই অপেক্ষার, আশঙ্খার মিলনের উৎসব খুশির ‘ঈদউল-ফিতর’ বা সংক্ষেপে ঈদ । এ বছর ঈদ উপলক্ষে ধনিয়াখালী থানার অন্তর্গত চক্ সুলতান গ্রামে, নবীন যুবক সংঘের সদস্য দ্বারা ও হিরণ্যবাটি নবারুণ সমিতির সদস্য দ্বারা ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল, কোভিড-১৯ পরিস্থিতির সকল বিধিনিষেধ মান্য করেই । চক্ সুলতান গ্রামের ২১ তম এই সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ধনিয়াখালী বিধানসভার বিজয়ী বিধায়ীকা অসীমা পাত্র । তিনি তাঁর ভাষণে বলেন – আমি হিন্দুর মেয়ে হয়েও সম্প্রিতির উৎসবকে ভাগাভাগি করিনি ।

বাংলা ধর্মনিরপেক্ষ শান্তিকে চায়। তায় তার যোগ্য জবাব দিয়েছে বাংলার মানুষ। দাঙ্গাবাজদের ভারতবর্ষের মানুষ কেউ চায় না। ধর্মনিরপেক্ষ বাংলায় কোনো বিভেদকামী শক্তির স্থান নেই। সম্প্রিতি হচ্ছে বাংলার মূলমন্ত্র ।এই অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সমাজসেবক নৌশাদ মল্লিক মহাশয়। এই পুরো অনুষ্ঠানের সভাপতি হিসাবে আসন অলংকৃত করেন।

চক্ সুলতান গ্রামের বয়স্ক নাগরিকদের সম্বর্ধনা করেন এলাকার বিজয়ী বিধায়িকা অসীমা পাত্র। বয়স্কদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন: – আব্দুল রহমান, জোবেদ আলী, আওলাত হোসেন, জরিনা বিবি, জীবননেশা বিবি, ফিরোজা বিবি, রাকিমন বিবি।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.