Press "Enter" to skip to content

আমার ম্যাজিক, সত্যজিৎ বাবু নাকি দুবার দেখেছেন। খুবই নাকি ভালো লেগেছিলো। মন্তব্য করেছিলেন “দারুণ, দারুণ”……।

ডঃ পি সি সরকার (জুনিয়র) বিশ্বখ্যাত জাদুশিল্পী ও বিশিষ্ট লেখক।

…..” আমার ‘ম্যাজিক’, আমি জানি,
গেলেও বিচিত্র পথে,
হয় নাই সর্বত্রগামী।… ”
দুঃখ লাগে। বুক ফেটে যায়। দেওয়ালে মাথা খুঁড়তে ইচ্ছা করে যখন দেখি ‘যা হতে পারতো’, সেটা মানুষের ঈর্ষা বা অজ্ঞতার কারণে, হয়ে উঠলো না দেখে ।
এতো জ্বলন কেন বিশ্বস্ত এই
শিক্ষিত পৃথিবী নামক অজ পাড়াগাঁয়ে!?

আমার ম্যাজিক, সত্যজিৎ বাবু নাকি দুবার দেখেছেন। খুবই নাকি ভালো লেগেছিলো। মন্তব্য করেছিলেন “দারুণ, দারুণ” বলে! ওনার মুখ থেকে ‘দারুণ’ বলে প্রশংসা পাওয়ায় আমি দিশেহারা হয়ে যাই। আমি নিজের কানকে বিশ্বাস করিনি। ইশ্, যদি রেকর্ড করা থাকতো!!

রেকর্ড করা হয়েছিলো। আমাদের , সহকারী ক্যামেরাম্যান সেটা ভিডিও করেছিলেন । কিন্তু দুঃখের ব্যাপার, ওই ভিডিও ক্যাসেটটা কোথায় যেন তার কাছ থেকে “হারিয়ে যায়” !

সম্প্রতি সেই ক্যামেরা ম্যান মারা যান।

ওর স্ত্রী কিছু ক্যাসেট এবং দরকারী কাগজ একটা প্যাকেটে সিল করা অবস্থায় এনে আমায় দিয়ে বলেন, মারা যাবার আগে ওর স্বামী নাকি চোখের জল ফেলে বলে গেছে, “এটা পি সি সরকার জুনিয়রের জিনিস। এসব তাঁর হাতে তুলে দিও। আর বলো, পারলে, আমায় ক্ষমা করে দিতে। নইলে আমার সদ্গতি হবে না।”

সব দরকারী ফুটেজ। তার একটা ‘দারুণ’ অংশ এখানে প্রকাশ করলাম। বাকীটা থাক। অতি ভোজন ভালো নয়।

আর কাগজ গুলোর মধ্যে রয়েছে আমার একটা ; একটা গল্প । ভেবে ছিলাম উনি একটু ঘষা-মাজা করে দেবেন, এবং একটা জাদুর রূপকথা সিনেমা তৈরি হবে। হয়নি। হতে দেয়নি। হয়তো ঈশ্বর চান নি।

তারপর তো এক সকালে উনি অমরলোকে চলে গেলেন।

ঈশ্বর ওই ক্যামেরাম্যানকে ক্ষমা করুন।

আমি তথৈবচ।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.